দ্য প্যান্থার : সুলতান রুকনুদ্দিন বাইবার্স (হার্ডকভার)

160.00৳ 

আপনি সাশ্রয় করছেন 70 টাকা। (30%)

বইটি শেয়ার করুন :

ক্যাশ অন ডেলিভারী

৭ দিনের মধ্যে রিটার্ন

ডেলিভারী চার্জ ৬০ টাকা থেকে শুরু

বিস্তারিত বর্ণনা

সুলতান রুকনুদ্দিন বাইবার্স। ৫৪ বছরের ছোট্ট একটা জীবন। ৩৩ বছরই যার কেটেছে অশ্বপৃষ্ঠে। ১৭ বছরের শাসনকাল। ১৭ মাসও নির্বিঘ্নে রাষ্ট্র চালাতে পেরেছেন কি-না সন্দেহ! সর্বদাই ছুটতে হয়েছে শত্রুর পিছু-পিছু। দেশ থেকে দেশান্তরে। চিতার ক্ষিপ্রতায় চষে ফিরতে হয়েছে পাহাড়, জঙ্গল, মরু-বিয়াবান আর সমুদ্র উপকূলে।

আধুনিক মিশর, ইসরাইল, ফিলিস্তিন, জর্দান, লেবানন, সিরিয়া, তুরস্ক ছিল তাঁর অবাধ বিচরণক্ষেত্র। তিন মহাদেশ ছিল কুরুক্ষেত্র।
তাঁকে একসাথে লড়তে হয়েছে তিন-তিনটি দুর্ধর্ষ পরাশক্তির সাথে। তার দুর্দান্ত থাবায়ই মোঙ্গলদের পিলে চমকে উঠেছিল। ক্রুসেডমানসে ভীতি ছড়িয়েছিল। গুপ্তঘাতকরা পথ হারিয়েছিল।

ক্রুসেড যদি তাকে দিয়ে থাকে অমরত্ব; মোঙ্গলবধ করে তুলেছে আরও গৌরবদীপ্ত। গুপ্তঘাতক নিধন তার কীর্তিতে চড়িয়েছে আলাদা মাহাত্ম্য।
তীব্রগতি, বজ্রথাবার কারণে ক্রুসেডারদের চোখে তিনি ছিলেন ‘দ্য প্যান্থার’—চিতারাজ। ক্রুসেডের দীর্ঘ ইতিহাসে খ্রিস্টানরা তার হাতেই সর্বশেষ ও প্রচণ্ড মার খায়। বস্তুত তার কঠোর কষাঘাতেই যবনিকাপাত ঘটে অন্তহীন ক্রুসেডের। ফলে তার ছিল আরও একটি ইউরোপীয় অভিধা—‘শেষ আঘাত’।

তিনি ছিলেন মামলুক সুলতান। তাঁর হাতেই মামলুক সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠিত হয়। তাঁর হাতেই জয়রথ থেমে নিশ্চিহ্ন হয়েছিল তাতারি গোষ্ঠী। পরাজিত হয়েছিল ক্রুসেডাররা। বন্দি হয়েছিল ফ্রান্স সম্রাট। নির্মূল হয়েছিল হাশাশিনরা। খ্রিস্টানদের হাত থেকে উদ্ধার হয়েছিল বায়তুল মাকদিস। এ রকম রোমাঞ্চকর ঘটনা নিয়ে বইটি লিখিত।

বিস্ময়ের ব্যাপার হচ্ছে, সুলতান বাইবার্সের সেসব কালজয়ী উপাখ্যান, বর্ণাঢ্য বীরত্বগাঁথা বহুকাল ধরেই পর্দাবৃত হয়ে আছে। চেপে রাখা হয়েছে সুকৌশলে। এই বই চায়, সামান্য হলেও মহাকালের ঘনকালো সে পর্দা সরে যাক। অনালোচিত ইতিহাসের দ্বার খুলুক। প্রজন্মের চিন্তায় গতি পাক।

লেখক
স্পেসিফিকেশন
Titleদ্য প্যান্থার : সুলতান রুকনুদ্দিন বাইবার্স (হার্ডকভার)
Authorইমরান আহমাদ
Publisherকালান্তর প্রকাশনী
রিভিউ

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “দ্য প্যান্থার : সুলতান রুকনুদ্দিন বাইবার্স (হার্ডকভার)”

Your email address will not be published. Required fields are marked *

×